Please Enable JavaScript
TrickBuzz
ফাইভারে ব্ল্যাকমেইল মুক্ত থাকবেন যেভাবে [Updated: 2020]

ফাইভারে ব্ল্যাকমেইল মুক্ত থাকবেন যেভাবে [Updated: 2020]

ফাইভারে ব্ল্যাকমেইল-এর পরিমান দিন দিন ব্যাপকহারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এর ফলে গিগ সেলারদের ভোগান্তি দিন দিন বাড়ছে। সেলারদের কিছু ভুলের কারণে তাদেরকে হতে হচ্ছে প্রতারণার শিকার। তাই আজকে আমি ব্ল্যাকমেইল মুক্ত ফ্রিল্যান্সিং করার জন্য আইডিয়াল ৩টি টিপস শেয়ার করবো।

ঘুম থেকে উঠে এটা দেখে খুবিই খারাপ লাগলো৷

ফাইভারে ব্ল্যাকমেইল
ফাইভারে ব্ল্যাকমেইল

ব্যাপারটা নিয়ে অনেকে হাসাহাসি করলেও এটা নিয়ে সাবধান হওয়া দরকার। আমার পয়েন্ট অফ ভিউ থেকে কিছু কথা। কিভাবে নিজেকে এবং নিজের গিগকে এসব ফেইক বায়ার থেকে বাচাবেন, তার জন্য ফলো করুন নিচের পয়েন্ট তিনটিঃ

১. গিগের রেইট বাড়ান

ফাইভারে ৫ ডলার বা ১০ ডলার এর গিগ গুলোকে এরা টার্গেট করে। এসে হুট করে অর্ডার দিয়ে দিবে, আর আপনাকে ব্ল্যাকমেইল করবে। তাই যাদের গিগ এর রেইট ৫/১০ ডলার দিয়ে শুরু তারা একটু সাবধানে থাকবেন, পারলে গিগের রেইট বাড়ান।

২. যত্রতত্র গিগ শেয়ারকে না বলুন

জৈনিক ব্যক্তির পোস্টে অনেকে মন্তব্য করছে সে আপনার ফেসবুক আইডি পেল কিভাবে?

আমরা অনেকে গিগ লিংক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করে থাকি। আবার অনেকে গিগ মার্কেটিং করে। আমার কখনো মনে হয় না গিগ মার্কেটিং করে আপনি সঠিক বায়ার পাবেন। নিজের ওয়েবসাইটে হলে ভিন্ন কথা। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম গিগ মার্কেটিং বা গিগের লিংক শেয়ার করা বা ফেভারিট এক্সচেঞ্জ এর জন্য যারা এসব করেন তারা এ মূলত এসব ফেইক বায়ারের ব্লাকমেইল এর শিকার।

http://www.trickbuzz.design/%e0%a6%ab%e0%a7%87%e0%a6%b8%e0%a6%ac%e0%a7%81%e0%a6%95%e0%a7%87-%e0%a7%ab%e0%a6%9f%e0%a6%bf-%e0%a6%ac%e0%a6%bf%e0%a6%b7%e0%a7%9f-%e0%a6%b6%e0%a7%87%e0%a7%9f%e0%a6%be%e0%a6%b0-%e0%a6%a8%e0%a6%be/

বায়ার আগে আপনার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম একাউন্ট টি নিশ্চিত করে তারপর ব্লাকমেইল করে। নতুন সেলার রা এই কাজ টা বেশি করে থাকে। আমি নিজেও একসময় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম প্রতিদিন নিয়ম করে দিনে ৩ বার পোস্ট করতাম। (অমুক ভাইয়ের ইউটিউব ভিডিও তে এভাবে করতে বলছে।)

সুতরাং যেখানে সেখানে নিজের প্রাইভেসি শেয়ার দেয়া থেকে বিরত থাকুন।

৩. ইনকাম স্ক্রিনশট বা রিভিউ স্ক্রিনশট

আমরা অনেকে এই কাজ টা করে থাকি। মনে রাখবেন আপনার কাছের মানুষ ও আপনার উপর ঈর্ষান্বিত হয়ে এরকম ব্লাকমেইল করতে পারে আপনার সাথে। তাই যতটা সম্ভব এসব স্ক্রিনশট শেয়ার করা থেকে বিরত থাকুন।

আপনি যদি উপরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলো ফলো করেন তাহলে ফ্রিল্যান্সিংয়ে ব্ল্যাকমেইল হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে হ্রাস পাবে। সবসময় সচেতন থাকবেন।

ব্ল্যাকমেইল মুক্ত ফ্রিল্যান্সিং হোক আমাদের লক্ষ

আমাদের সাইটের আর্টিকেলগুলো ভালো লাগলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না। লেটেস্ট আর্টিকেলগুলো ইমেইলে পেতে আমাদের নিউজলেটারে সাবস্ক্রাইব করুন।

RONiB

This author may not interested to share anything with others!

1 comment

  • ভাই আপনার ট্রিকটা পেয়ে অনেক উপকৃত হইলাম। ভাই দোয়া করি যেনো আরো এগিয়ে যেতে পারেন।

Most popular

Most discussed